বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ‘বাংলালিংক আলপনায় বাংলাদেশ পাওয়ার্ড বাই বার্জার পেইন্টস্’ ঢাকাসহ দেশের ৫টি প্রধান শহরে অনুষ্ঠিত

[ঢাকা, বাংলাদেশ, ১৩ এপ্রিল ২০১৭]- এশিয়াটিক ইএক্সপি, বাংলালিংক ডিজিটাল কমিউনিকেশনস লিমিটেড এবং বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেড যৌথ উদ্যোগে বাংলা নববর্ষ ১৪২৪ উদযাপন করতে যৌথভাবে আয়োজন করেছে দেশের সবচেয়ে বড় আলপনা উৎসব ‘বাংলালিংক আলপনায় বাংলাদেশ পাওয়ার্ড বাই বার্জার পেইন্টস ’। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের প্রধান পাঁচটি শহরেও এই আলপনা উৎসব একযোগে উদযাপন করা হয়। এ বছর সারা দেশে মোট চার লাখ স্কয়ার ফিট আলপনা আঁকা হয়।

রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ে রাত ১১টায় এই উৎসব উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের মাননীয় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এবং মাননীয় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। আলপনা উৎসবে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট এন্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান, এশিয়াটিক ৩৬০-এর এক্সিকিউটিভ ভাইস চেয়ারপার্সন সারা জাকের, বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রূপালী চৌধুরী।

ঢাকা ও এর আশেপাশের এলাকা থেকে সাধারণ মানুষ এসে এই আলপনা উৎসবে অংশ নেন। প্রথমবারের মতো এবারের দেশের সবচেয়ে বড় আলপনা একযোগে উদযাপিত হচ্ছে ঢাকার মানিক মিয়া এভেনিউ, চট্টগ্রামের ডিসি হিল এলাকা, রাজশাহীর পদ্মার পাড়, খুলনার শিববাড়ি চত্ত্বর, বরিশালের বঙ্গবন্ধু পার্ক রোড এবং ময়মনসিংহের টাউন হল চত্ত্বরে। পৃষ্ঠপোষক চিত্রশিল্পী মো: মুনিরুজ্জামান সাধারণ মানুষের সহযোগিতায় মানিক মিয়া এভিনিউয়ে আলপনা অঙ্কন করেন।

১৩ এপ্রিল, ২০১৭ রাত ১১টায় আলপনা উৎসব শুরু হয়ে ১৪ এপ্রিল, ২০১৭ ভোর পর্যন্ত উদযাপন হয়। মূল অনুষ্ঠান হয় মানিক মিয়া এভিনিউয়ে রাস্তার উপর আলপনা আঁকার মাধ্যমে। এতে আরও ছিলো বাঙ্গালিয়ানা ফুড কোর্ট, ফটো বুথ, মুখে আলপনা অঙ্কনসহ বিভিন্ন আকর্ষণীয় আয়োজন। জনপ্রিয় ব্যান্ড দল ‘চিরকুট’-এর চমৎকার পারফরমেন্স এই আয়োজনকে আরও রাঙিয়ে তোলে।

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, “.................................................................................................. ..............................................................................................................................................................................................................................................................................”।

আলপনা উৎসবে মাননীয় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, “.............................................................................................. ..................................................................................................................................................................................................................................................................................”।

বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট এন্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান বলেন, “বাংলাদেশের বিভিন্ন আঞ্চলের মানুষের এই চমৎকার মিলন মেলার সাক্ষী হতে পেরে আমি সত্যিই খুব গর্বিত। বাংলালিংক বরাবরই দেশীয় সংস্কৃতির উৎসবগুলোকে পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছে এবং এরকম একটি অনন্য উদ্যোগের অংশ হতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। আমরা বাঙালী ঐতিহ্যের গভীরতা এবং গুরুত্ব বুঝি, সেজন্যই আমরা বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষদের সম্মিলন ঘটানোর চেষ্টা করেছি। আমি আশা করি, বৈশাখের রং সবার মাঝে ছড়িয়ে যাবে এবং বাংলাদেশের মানুষের জন্য মঙ্গল বয়ে আনবে”।

বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রূপালী চৌধুরী বলেন, “বার্জার সবসময় বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের পাশে থাকে। এবারের উৎসব বিগত বছরগুলোর তুলনায় বেশ আলাদা। এই উৎসবে দেশের সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণ করার আগ্রহ দেখে আমরা অনেক খুশি যা আমাদেরকে উৎসাহ যুগিয়েছে। আগামী দিনেও আমরা এ ধরনের উৎসবের ধারাবাহিকতা বজায় রাখব”।

এশিয়াটিক ৩৬০-এর এক্সিকিউটিভ ভাইস চেয়ারপার্সন সারা জাকের বলেন, “এই অসাধারণ আয়োজনের সঙ্গী হওয়াটা সত্যিই গর্বের বিষয়। আমরা আনন্দিত যে, বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিভিন্ন ধরনের মানুষ এই উৎসব উদযাপন করতে এসেছে। এটি একটি সার্বজনীন উৎসব যেখানে সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষ অংশগ্রহণ করে। এই প্রথমবারের মতো এই আলপনা উৎসবে দেশের ছয়টি গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চলের সাধারণ মানুষ এসে রং দিয়ে রাস্তায় আলপনা করেছে”।

এশিয়াটিক ইএক্সপি সম্পর্কে:

এশিয়াটিক ইএক্সপি বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষ ও পথিকৃত বিটিএল মার্কেটিং এজেন্সি। এটি সমন্বিত কমিউনিকেশনস সেবাকেন্দ্র, এশিয়াটিক থ্রিসিক্সটি-এর একটি অংশ।

ওয়েবসাইট:  www.AsiaticEXP.com

ফেসবুক: https://www.facebook.com/asiatic.exp

গ্রুপ ওয়েবসাইট: www.asiatic360.com

 

বাংলালিংক সম্পর্কে-

বাংলালিংক, বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষ ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান যার রয়েছে ৩ কোটিরও বেশি গ্রাহক। এটি নেদারল্যান্ড ভিত্তিক ভিওন-এর একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান।

ওয়েবসাইট: www.banglalink.net 

ফেসবুক: www.facebook.com/banglalinkmela

টুইটার: https://twitter.com/banglalinkmela?lang=en

ইউটিউব: https://www.youtube.com/user/banglalinkmela

লিঙ্কডিন: https://www.linkedin.com/company-beta/6660/?pathWildcard=6660   

বার্জার সম্পর্কে:  

বাংলাদেশ পেইন্ট শিল্পে বার্জার একটি প্রাচীন নাম হওয়া স্বত্ত্বেও এটি প্রযুক্তিগতভাবে সবচেয়ে উন্নত কোম্পানীগুলোর মধ্যে অন্যতম। উন্নতমানের পণ্য এবং সেবা নিয়ে আসার জন্য এটি সবসময় উদ্ভাবনী প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছে। ২৫০ বছরের সুদীর্ঘ ঐতিহ্যকে সামনে রেখে বার্জার সর্বপ্রকার সাবস্ট্রেটের জন্য বিশ্বমানের পেইন্ট এবং অতুলনীয় সেবা  দিয়ে আসছে।

ওয়েবসাইট- http://www.bergerbd.com/

 ফেসবুক- https://www.facebook.com/bergerbd/