সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির ভাতা প্রদান প্রক্রিয়াকে সহজ করতে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড-এর সাথে চুক্তিবদ্ধ হল বাংলালিংক

ঢাকা, ১৫ মার্চ, ২০১৮: বাংলাদেশের অন্যতম ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির ভাতা প্রদান প্রক্রিয়াকে গ্রাহকদের কাছে সহজতর করার লক্ষ্যে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড-এর সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলালিংক-এর সিইও এরিক অস ও চিফ সেলস্ অফিসার রিতেশ কুমার সিং। এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড-এর পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন ম্যানেজিং ডিরেক্টর (ভারপ্রাপ্ত) কাজি মো. তালহা, এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট এ্যান্ড হেড অফ ফাইন্যানশিয়াল ইনক্লুশন এ্যান্ড এডিসি ডিভিশন কাজি মো. সাফায়েত কবির, এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট এ্যান্ড হেড অফ এফএডি এ্যান্ড সিএফও হারুনুর রশিদ ও প্রতিষ্ঠান দুইটির উচ্চ পর্যায়ের অন্যান্য কর্মকর্তারা।

এই চুক্তি অনুসারে, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির ভাতা প্রদান প্রক্রিয়ার সাথে বাংলালিংক-এর স্থানীয় পর্যায়ে কর্মরত রিটেইলারদের সংযুক্ত করবে। বাংলালিংক রিটেইলাররা এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড-এর এজেন্ট ব্যাংকিং অ্যাপ ব্যবহার ও বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে ভাতা গ্রহীতাদের অর্থ প্রদান করবেন। যৌথ এই কর্মসূচি দেশের যেসব স্থান ব্যাংকিং ব্যবস্থার আওতার বাইরে রয়েছে সেসব স্থানের গার্মেন্টস কর্মীদের জন্য অনলাইন ব্যাংকিং-এর সুবিধা নিশ্চিত করবে। সামগ্রিকভাবে কর্মসূচিটি দেশের অর্থনৈতিক অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে একটি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে।

বাংলালিংক-এর চিফ সেলস্ অফিসার রিতেশ কুমার সিং বলেন, “ বাংলালিংক প্রযুক্তির মাধ্যমে মানুষের জীবনযাত্রার রূপান্তরে বিশ্বাস করে। এই রূপান্তরের অর্থ শুধু গ্রাহকদের অত্যাধুনিক ডিজিটাল সেবা দেওয়া নয়, বরং প্রান্তিক অঞ্চলে বসবাসরত মানুষদের প্রাথমিক চাহিদা পূরণে ভূমিকা রাখা। দেশের সব প্রান্তে বাংলালিংক-এর রিটেইলাররা কর্মসূচিটিতে যুক্ত হলে ভাতা প্রদানের প্রক্রিয়া আরও নির্ভরযোগ্য ও সহজ হবে।”

এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর (ভারপ্রাপ্ত) কাজি মো. তালহা বলেন, “বাংলাদেশ সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির ভাতা প্রদান প্রক্রিয়াকে সহজ করার উদ্দেশ্যে বাংলালিংক-এর সাথে চুক্তিবদ্ধ হতে পেরে আমরা আনন্দিত। বাংলালিংক-এর রিটেইলাররা গ্রহীতাদের কাছে ভাতা পৌঁছে দিতে আমাদের সাহায্য করবে। এই উদ্যোগে অংশগ্রহণ করার জন্য আমি বাংলালিংক-কে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।”

ডিজিটাল সেবা প্রদানের মূল কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি বাংলালিংক দেশের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের সাথে যুক্ত হয়ে জনসাধারণের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। দেশের অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নে অবদান রাখতে ভবিষ্যতেও স্বনামধন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে যুক্ত হয়ে উন্নয়নমূলক কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করতে চায় বাংলালিংক।