প্রয়োজনীয় প্রশ্ন ও উত্তর

০১. সিম প্রতিস্থাপনের পূর্বশর্ত কি?
উত্তর: সিম প্রতিস্থাপনের জন্য সাবস্ক্রিপশন করা যাবে যদি কিনা সিমটি হারিয়ে যায়/চুরি হয়ে যায়/ অক্ষম হয়ে যায়/নষ্ট হয়ে যায়। গ্রাহককে সিম প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে তার মূল সাবস্ক্রিপশন চুক্তি ফর্ম (SAF) আনতে হবে। SAF যদি না থাকে বা যাচাই করা না যায়, টাচ পয়েন্ট

কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধি সাবস্ক্রিপশন ব্যবহারের সত্যতা কিছু প্রশ্নের ভিত্তিতে যাচাই করবেন।

  • মূল SAF-এর কপি। মূল SAF হারিয়ে গিয়ে থাকলে কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধি কানেকশনের বৈধতা যাচাই করার জন্য কাস্টমারের সম্পর্কে কিছু তথ্য জিজ্ঞেস করতে পারেন (যেমন কাস্টমারের ব্যক্তিগত তথ্য, বর্তমান ব্যালেন্স, শেষ রিচার্জ, NID, FNF, ইত্যাদি)।
  • সিম পরিবর্তনের জন্য প্রয়োজন বায়োমেট্রিক নিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র। যদি জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকে তাহলে সিম পরিবর্তনের জন্য বাংলালিংক কাস্টমার কেয়ারে নিয়ে আসো:
    • পাসপোর্ট,
    • ড্রাইভিং লাইসেন্স বা
    • জন্ম নিবন্ধন

হেল্পলাইন থেকে সিম বদলানোর ক্ষেত্রে ন্যাশনাল আইডি যাচাই করার পরামর্শ দেয়া হবে। কাস্টমার যদি বলেন যে তার NID নেই বা হারিয়ে গিয়েছে, সে ক্ষেত্রে কাস্টমারকে উপরের তালিকা থেকে যে কোন বিকল্প ফোটো আইডি ও তার ফটোকপি নিয়ে টাচ পয়েন্টে (কেয়ার সেন্টার, বিপি অথবা বিএসপি) যেতে বলা হবে। ফোটো আইডি’র বৈধতা যাচাই করার পর সার্ভিস পুনরায় চালু করা হবে।

  • বিকল্প আই ডি ব্যাবহার করে সিম বদলানোর ক্ষেত্রে কাস্টমারকে লিখিত ভাবে জানাতে হবে যে সেই মুহূর্তে তার NID ছিল না এবং তার পরিবর্তে বিকল্প আই ডি ব্যাবহার করা হয়েছে।
    • সম্পূর্ণ ফর্ম
    • কর্পোরেট (এবং SME) কাস্টমারদের কোম্পানি লেটারহেড-এ লিখিত ভাবে প্রমাণ করতে হবে যে তিনি-ই সেই কানেকশনের মালিক।

০২. সিম বদলানোর চার্জ কি? 
উত্তর:

সংযোগের ধরণপ্রিয়জনসিম বদলানোর ফি
প্রিপেইড/পোস্টপেইড/কল এন্ড কন্ট্রোলপ্লাটিনাম০ টাকা
প্রিপেইড/পোস্টপেইড/কল এন্ড কন্ট্রোলগোল্ড/সিল্ভার১০০ টাকা
প্রিপেইড/পোস্টপেইড/কল এন্ড কন্ট্রোলরেজিস্ট্রেশন ছাড়া১০০ টাকা

৩. নতুন কানেকশন কেনার জন্য কি কি প্রয়োজন?
উত্তর: বাংলালিংক নতুন সংযোগ কেনার জন্য কোনো কাগজপত্রের প্রয়োজন নেই। শুধুমাত্র নিম্নলিখিত তথ্যের প্রয়োজন:

  • কাস্টমারের নাম
  • কাস্টমারের NID নাম্বার
  • জন্ম-তারিখ
  • বর্তমান ঠিকানা
  • ন্যাশনাল আইডি কার্ড দিয়ে বাইওমেট্রিক ভেরিফিকেশন বাধ্যতামূলক নতুন সংযোগ কেনার জন্য। আপনার কাছে যদি ন্যাশনাল আইডি কার্ড না থাকে তবে আপনি নিঁ নিম্নলিখিত পরিচয়পত্রগুলো দিয়ে নতুন সংযোগ নিতে পারবেন:
  • পাসপোর্ট
  • ড্রাইভিং-লাইসেন্স
  • জন্ম-পরিচয়পত্র

০৪. বাংলালিংক পোস্টপেইড গ্রাহকরা কিভাবে ইন্টারন্যাশনাল রোমিং ফ্যাসিলিটি চালু করবেন ও তা করার জন্যা কি কি লাগবে?
উত্তর:পোস্টপেইড রোমিং-এর জন্য যা যা প্রয়োজন

১। আইএসডি সুবিধা সহ বাংলালিংক পোস্টপেইড কানেকশন
২। সিকিউরিটি ডিপোজিট ও রোমিং বিল দেয়ার জন্য ৩ মাস-এর বৈধতা সহ আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ড (ভিসা, মাস্টারকার্ড, অথবা এমেক্স কার্ড)
৩। ক্রেডিট কার্ড-এর উভয় পিঠের ফটোকপি

ডিপোজিট

১। অটো ডেবিট সহ একক গ্রাহক: ৭,০০০
২। অটো ডেবিট ব্যতীত একক গ্রাহক: ১০,০০০
৩। গুরুত্মপূর্ণ একক গ্রাহক: বিনামূল্য
৪। কর্পোরেট গ্রাহক: বিনামূল্য

প্রদানের উপায়

গ্রাহকদের নিচের রীতি অনুযায়ী আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ড দ্বারা সকল রোমিং বিল পরিশোধ করতে হবে।

  • স্ট্যান্ডিং অর্ডার দ্বারা রোমিং বিল পরিশোধঃ গ্রাহক CCD কে দিয়ে CMU’র কাছে স্ট্যান্ডিং অর্ডার ইন্সট্রাকশন জমা দিতে পারবেন। গ্রাহকের রোমিং বিল তার আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ড থেকে সংগ্রহ করা হবে। রোমিং বিল পরিশোধ করতে, স্বয়ং আসতে হবে না বা কোনো প্রতিনিধি পাঠাতে হবে না। এই সুবিধা শুধুমাত্র UCBL ও সিটি ব্যাংক-এর গ্রাহকদের জন্য প্রযোজ্য
    অথবা
  • স্বয়ং উপস্থিতিঃ গ্রাহক কাস্টমার কেয়ার সেন্টার-এ তার আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ড দ্বারা বিল পরিশোধ করতে পারেন, অথবা
  • প্রতিনিধি দ্বারাঃ গ্রাহক লিখিত অনুমোদন (বিল-এর সাথে উপলব্ধ) সহ তার প্রতিনিধিকে পরিশোধনের মূল্য, কোন মাসের বিল, ক্রেডিট কার্ড নাম্বার, এবং মূল বিলের কপি উল্লেখ করে পাঠাতে পারেন। অথবা
  • ফরেন কারেন্সি একাউন্ট থেকে চেক/পে অর্ডার/ডিমান্ড ড্রাফটঃ গ্রাহক বাংলালিংক ডিজিটাল কমিউনিকেশনস লিমিটেড-এর নামে তার ফরেন কারেন্সি একাউন্ট থেকে চেক/পে অর্ডার/ডিমান্ড ড্রাফট ইস্যু করতে পারেন

ট্যারিফ

গ্রাহকরা 7626 নাম্বারে দেশের নাম এসএমএস করে তাদের রোমিং চার্জ এবং পার্টনার লিস্ট জানতে পারেন। উদাহরণঃ <australia> লিখে 7626 নাম্বারে SMS পাঠিয়ে দিন। ২ টাকা/SMS + SD + VAT + SC।

০৫. বাংলালিংক পোস্টপেইড গ্রাহকরা কিভাবে তাদের মাসিক বিল-এর স্টেটম্যান্ট পাবেন?
উত্তর: বাংলালিংক পোস্টপেইড গ্রাহকরা তাদের মাসিক বিল-এর স্টেটম্যান্ট কুরিয়ার সার্ভিস দ্বারা পেতে পারেন। গ্রাহকের মাসিক বিল-এর স্টেটম্যান্ট তাদের বিল সাইকেল-এর পরের সপ্তাহে পেয়ে যাবেন। যদি গ্রাহক বিল না পেয়ে থাকেন, সে ক্ষেত্রে তিনি যে কোন বাংলালিংক সেলস এবং কেয়ার সেন্টার-এ যোগাযোগ করতে পারেন; অথবা সাহায্যের জন্য 121 ডায়াল করতে পারেন; অথবা ই-মেইল-এর দ্বারা (e-bill) পেতে পারেন। (e-bill) অনুরোধ করতে গ্রাহক তার ই-মেইল অ্যাড্রেস 4268 নাম্বারে পাঠাতে পারেন, অথবা 121-এ কল করতে পারেন।

০৬. স্ক্র্যাচ কার্ড দ্বারা রিচার্জ করার পদ্ধতি কি?
উত্তর: *123* ডায়াল করে কার্ড-এর গোপন নাম্বার লিখুন। এই পদ্ধতি সক্ষম হলে মেয়াদ সহ একটি কনফারমেশন মেসেজ পাবেন। যেমনঃ (*123*xxxxxxxxxxxxxx#)। অথবা 123 ডায়াল করে নির্দেশ অনুযায়ী স্ক্র্যাচ কার্ড রিচার্জ করতে পারেন। [আইভিআর ফ্লো: 123 > 1 > 1]

০৭. FNF নাম্বার যোগ, বিয়োগ বা পরিবর্তন কিভাবে করব?
উত্তর:
প্রিপেইড:

FNF যোগFNF বিয়োগFNF পরিবর্তন
SMS দ্বারাUSSD দ্বারাIVRদ্বারাSMS দ্বারাUSSD দ্বারাSMS দ্বারাUSSD দ্বারাIVRদ্বারা
3300 নাম্বারে add লিখে [স্পেস] দিয়ে নাম্বারটি লিখুন। যেমনঃ add [স্পেস] 01xxxxxxxxxUSSD *166*11*019xxxxxxxx# ডায়াল করুন। অথবা *121*4*2*019xxxxxxxx# ডায়াল করুন।123 ডায়াল করুন, তারপর নির্দেশ অনুসরণ করুন।3300 নাম্বারে rem [স্পেস] 019xxxxxxxx লিখে এসএমএস পাঠান।USSD *166*13*019xxxxxxxx# ডায়াল করুন, অথবা *121*4*4*019xxxxxxxx# ডায়াল করুন।ch [স্পেস]019xxxxxxxx [স্পেস] 019xxxxxxxx লিখে 3300 নাম্বারে SMS পাঠান।USSD *166*12* পুরোন নাম্বার*নতুন নাম্বার# ডায়াল করুন। অথবা *121*4*3*পুরোন নাম্বার*নতুন নাম্বার# ডায়াল করুন।123 ডায়াল করে ৪র্থ অপশন বাছাই করে নির্দেশ অনুসরণ করুন।

পোস্টপেইড:

FNF যোগFNF বিয়োগFNF পরিবর্তন
অভিপ্রেত FNF নাম্বারগুলির মাঝখানে স্পেস দিয়ে 3311 নাম্বারে এসএমএস করুন। দেশের কোড সহ নাম্বার-ও (880 অথবা +880) গ্রহণযোগ্যrem 01xxxxxxxxx লিখে 3311 নাম্বারে SMS পাঠিয়ে দিন। এই পদ্ধতিতে ১টির বেশী নাম্বার সরানো সম্ভব নয়।c 01xxxxxxxxx 01xxxxxxxxx লিখুন (প্রথমটি বর্তমান এবং দ্বিতীয়টি নতুন নাম্বার) এবং 3311 নাম্বারে পাঠিয়ে দিন। এক-ই পদ্ধতিতে ২য় এবং ৩য় নাম্বার বদল করুন। এই পদ্ধতিতে ১টির বেশী নাম্বার সরানো সম্ভব নয়।

০৮. সুপার FNF নাম্বার কিভাবে বদলাবো?
উত্তর: সুপার FNF যোগ করতে 3300 নাম্বারে sadd[স্পেস]019xxxxxxxx লিখে SMS করুন। অথবা USSD *166*7*019xxxxxxxx # ডায়াল করুন। অথবা *121*4*6*019xxxxxxxx# ডায়াল করুন। অথবা 123 ডায়াল করে ৪র্থ অপশন বাছাই করে নির্দেশ অনুসরণ করুন।

সুপার FNF বদলাতে ৩৩০০ নাম্বারে sch[স্পেস]019xxxxxxxx[স্পেস]019xxxxxxxx লিখে SMS পাঠান। অথবা USSD *166*8* পুরোন নাম্বার*নতুন নাম্বার# ডায়াল করুন। অথবা *121*4*7*old number*new number# ডায়াল করুন। অথবা ১২৩ ডায়াল করে ৪র্থ অপশন বাছাই করে নির্দেশ অনুসরণ করুন।

০৯. আইএন কানেকশন পেতে প্রিপেইড কানেকশন থেকে প্রথম কল কিভাবে করবো? 
উত্তর: প্রিঅ্যাক্টিভ সিম গ্রাহকরা 123 ডায়াল করে প্রিলোড করা ১৫ দিনের কানেকশন চালু করতে পারেন।

১০. প্রিপেইড এবং কল এন্ড কন্ট্রোলের ব্যালেন্স জানার পন্থা কি?
উত্তর: *124# ডায়াল করুন অথবা আইভিআর 123 > 2 > 1 ডায়াল করে শুনে নিন আপনার মেইন অ্যাকাউন্ট ব্যাল্যান্স। অথবা ইউএসএসডি *121*1# ডায়াল করুন।

১১. PIN এবং PUK কোড কি?
উত্তর: PIN-পার্সোনাল আইডেন্টিফিকেশন নাম্বার (পিন হল সিম কার্ডের অননুমোদিত ব্যবহার সতর্কতার জন্য ব্যবহার করা হয়)
PUK- পার্সোনাল আনব্লকিং কী (PIN1 আনব্লক করতে PUK1 ব্যবহার করা হবে)

১২. আপনার PIN বা PUK কোড ব্লক হলে কি করতে হবে?
উত্তর: গ্রাহক যদি ৩ বার ভুল পিন কোড প্রবেশ করে, সিম কার্ড ব্লক করা হবে। এই পরিস্থিতিতে, গ্রাহক সিম কার্ড আনব্লক করতে একটি PUK কোডের প্রয়োজন হবে। আনব্লক করার জন্য নিম্নলিখিত পদ্ধতি অনুসরণ করুন: PUK1 প্রবেশ করুন এবং ok প্রেস করুন> PIN1 এবং ok প্রেস করুন> PIN1 এবং ok প্রেস করুন। অনুগ্রহ করে মনে রাখবেন যে PIN1 আনব্লক করতে PUK1 এর দরকার হবে। কেউ ভুল করে যদি PUK কোড দশ বারের বেশি প্রবেশ করে, তার তার সিম কার্ড স্থায়ীভাবে ব্লক বা অকার্যকর হবে।

১৩. আপনি কিভাবে হারিয়ে যাওয়া সিমের সার্ভিস প্রতিরোধ করবেন?
উত্তর: কোনো কারণে সিম হারিয়ে গেলে/ চুরি হয়ে গেলে কিংবা নষ্ট হয়ে গেলে গ্রাহক তৎক্ষণাৎ আমাদেরকে ফ্যাক্স এর মাধ্যমে জানিয়ে অথবা নিকটস্থ বাংলালিংক সেলস অ্যান্ড কেয়ার সেন্টারে গিয়ে নাম্বারটি বন্ধ করে দিতে পারেন। অথবা তিনি 121 (বাংলালিংক) অথবা 01911304121 নাম্বারে (অন্যান্য) হেল্পলাইনে কল করতে পারেন।

১৪. আপনি সিম ফিরে পেলে কিভাবে সার্ভিস পুনরুদ্ধার করবেন? 
উত্তর: গ্রাহক তার হারিয়ে যাওয়া সিম ফিরে পেলে, তিনি সে ফ্যাক্সের মাধ্যমে অথবা লিখিতভাবে আমাদের কাছে একটি অনুরোধ পাঠাতে পারেন বা ব্যক্তিগতভাবে বাংলালিংক বিক্রয় ও সেবা কেন্দ্রে গিয়ে সিমটি পুনরুদ্ধার করতে পারবেন।

১৫. নিরাপত্তা আমানত কি?
উত্তর: নিরাপত্তা আমানত পোস্ট পেইড সংযোগ পাবার আগে এটি গ্রাহকের একরকম আপফ্রন্ট পেমেন্ট। গ্রাহকের লাইন নিষিদ্ধ করা যদি সে নিরাপত্তা আমানত অতিক্রম করে অথবা তিনি যদি নিরাপত্তা আমানতের উপর একটি নির্দিষ্ট পরিমান অতিক্রম করে।

১৬. নিরাপত্তা আমানত গ্রাহক কি বৃদ্ধি করতে পারে?
উত্তর: হ্যাঁ, গ্রাহক যদি চান তিনি আমানত বৃদ্ধি করতে পারবেন।

১৭. কেন বিল/ব্যবহারের জন্য একটি ফোন সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়? 
উত্তর: তার ব্যবহার বিল/ব্যবহারের সীমা অতিক্রম করলে ফোন সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

১৮. গ্রাহকদের বাংলালিংক সংযোগ ক্রয় থেকে প্রাপ্ত কাগজপত্রের সাথে কি করা উচিত?
উত্তর: গ্রাহকদের পর বিক্রয় সেবা নিশ্চিত করার জন্য নিম্নলিখিত সাবস্ক্রিপশনের নথি সংরক্ষণ করতে হবে ভবিষ্যতে কোনো রেফারেন্স আসার আগ পর্যন্ত:

ক. সাবস্ক্রিপশন ফর্ম (গ্রাহকের কপি)
খ. ক্রয়ের মানি রিসিট
গ. স্টার্টারের/সিম রিপ্লেস্মেন্ট সাথে কিট স্বাগত চিঠি যেমন- সিম, PIN এবং PUK সংক্রান্ত তথ্য সমূহ

১৯. গ্রাহক কিভাবে ঠিক প্রয়োজন এবং পদ্ধতি অনুযায়ী তার পোস্টপেইড সংযোগে আইএসডি সুবিধা সক্রিয় করতে পারবেন?
উত্তর: ISD সুবিধা উপভোগের জন্য অপরিহার্য (শুধুমাত্র পোস্টপেইড সংযোগের জন্য প্রযোজ্য):

  • নিয়মিত প্রাপ্তার ক্ষেত্রে পাত্তনা নিরাপত্তা আমানতের চেয়ে কম হতে হবে; অন্যথায় মোট পাত্তনা পরিশোধ করতে হবে
  • গ্রাহক কেয়ারলাইনে (121) কল করে আইএসডির জন্য অনুরোধ করবে এবং গ্রাহকের তথ্য যাচাই করা হবে। গ্রাহক সঠিকভাবে সব তথ্য প্রদান করলে তারপর আইএসডি সংযোগের সাথে সম্পর্কিত করা হবে
  • কল অ্যান্ড কন্ট্রোল গ্রাহদের ISD পেতে সংযোগ সম্পর্কিত সকল তথ্য প্রদান করতে হবে। এছাড়া, নিম্নলিখিত কাগজপত্র প্রদান করে তার ঠিকানার সত্যতা/স্বাগত চিঠি প্রত্যাবর্তন করতে হবে যদি কিনা গ্রাহকের তথ্য সিস্টেমে বা বিলে পাওয়া না যায়
    • SAF এর কপি
    • ন্যাশনাল আইডি কার্ড
    • পাসপোর্ট
    • ড্রাইভিং লাইসেন্স
    • TIN সার্টিফিকেট
    • নিয়োগকর্তার কাছ থেকে চিঠি
    • ট্রেড লাইসেন্স
    • গ্রাহকগণ বিপি / বিএসপি-এর মাধ্যমে আইএসডির জন্য অনুরোধ করতে পারেন

২০. বাংলালিংক এর পেমেন্টের ধরণ/অপশনগুলি কি? প্রিপেইড রিচার্জের অপশনগুলি কি?
উত্তর: নিচে বাংলালিংক সংযোগের জন্য পেমেন্ট অপশন উল্লেখ করা আছে:

  • আই’টপ-আপ এর মাধ্যমে পেমেন্ট করা যাবে
  • bKash এর মাধ্যমে পেমেন্ট করা যাবে
  • যে কোন বাংলালিংক কাস্টমার কেয়ার সেন্টার, বিপি ও বিএসপি-তে পেমেন্ট করা যাবে
  • যমুনা ব্যাংক, ডাচ বাংলা ব্যাংক, ইস্টার্ন ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, ইউসিবিএল, প্রাইম ব্যাংক বা আইএফআইসি ব্যাংকের যে কোনো শাখায় পেমেন্ট করা যাবে
  • অটো বিল পে (ভিসা, মাস্টার ও অ্যামেক্স কার্ডের মাধ্যমে), এছাড়াও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড (কার্ড অ্যাকাউন্ট ধারক) বা অটো ডেবিট ও আইভিআরের মাধ্যমে পেমেন্ট করা যাবে
  • ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে বাংলালিংক কর্পোরেট ওয়েবসাইট, ফেসবুক ফ্যান পেইজ বা q-cash গেটওয়ের মাধ্যমে অনলাইন টপ-আপ করতে পারবেন
  • CQ / ডিডি / ডাকঘরের মাধ্যমে “বাংলালিংক ডিজিটাল কমিউনিকেশন লিমিটেড”-এ পেমেন্ট করা যাবে
  • কর্পোরেট গ্রাহকদের জন্য ফান্ড ট্রান্সফার (গ্রাহক অ্যাকাউন্ট থেকে বাংলালিংক অ্যাকাউন্ট)