বাংলালিংক ইন্টারন্যাশনাল রোমিং

ব্যক্তিগত গ্রাহকদের জন্য: 
নতুন ব্যক্তিগত গ্রাহকদের ইন্টারন্যাশনাল রোমিং পাবার যোগ্যতা নিচে দেওয়া হলো:

যা অবশ্যই থাকা প্রয়োজন:

১. যে কোন বাংলালিংক পোস্ট-পেইড সংযোগের (কল এন্ড কন্ট্রোল ব্যতীত) সাথে ISD সুবিধা 
২. ইন্টারন্যাশনাল ক্রেডিট কার্ড-এর সাথে বিল প্রদানের জন্য ৩ মাসের মেয়াদ 
৩. সিক্যিউরিটি ডিপোজিট (প্রতি কোম্পানি পলিসি)

যা থাকা উপদিষ্ট:

১. অটো বিল পেমেন্ট অথোরাইজেশন ফর্ম
২. অথবা, ক্রেডিট কার্ড-এর ফটোকপি (শুধুমাত্র যদি গ্রাহকের অটো বিল পেমেন্ট অপশন-টি গ্রহণ করতে অসম্মতি থাকে)

কর্পোরেট গ্রাহকদের জন্য: 
কর্পোরেট গ্রাহকদের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য নিচে দেওয়া হলো:

যা থাকা প্রয়োজন

১. মোবাইলে ইন্টারন্যাশনাল রোমিং পাবার জন্য রোমিং সাবস্ক্রিপশন ফর্মে কোম্পানি অনুমোদিত ব্যক্তির স্বাক্ষর থাকতে হবে 
২. গ্রাহককে এছাড়াও তার ক্রেডিট কার্ড থেকে রোমিং সাবস্ক্রিপশন ফর্মে স্বাক্ষর করার মাধ্যমে সব রোমিং ডিপোজিট ও বিলসমূহের ক্ষেত্রে সম্মত থাকতে হবে

যা প্রয়োজন নেই

১. পাসপোর্ট 
২. ন্যাশনাল আইডি 
৩. জামানত

বাংলালিংক আন্তর্জাতিক রোমিং সুবিধা পাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ধাপসমূহ

১. প্রয়োজনীয় সব নথিপত্র সংগ্রহ করুন 
২. আমাদের যে কোন কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে গিয়ে কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধিকে সাহায্যের জন্য বিস্তারিত খুলে বলুন। আমাদের কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধি আপনাকে রোমিং সুবিধা পাওয়ার পুরো বিষয়টি কীভাবে করবেন তা বুঝিয়ে দিবে
৩. গোটা দুনিয়া ঘুরে বেড়ানোর জন্য তৈরি হোন

পৃথিবী ভ্রমণের সময় সঠিক নেটওয়ার্ক বেছে নিন

. অটোমেটিক নেটওয়ার্ক বাছাইকরণ: 
আপনার হ্যান্ডসেটে যদি স্বয়ংক্রিয় নেটওয়ার্ক সিলেকশান সুবিধা থাকে তাহলে নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন:

১. হ্যান্ডসেটটি চালু করুন এবং গ্রহণসাধ্য নেটওয়ার্ক খুজে পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন
২. আপনি যে কোন নাম্বারে কল করতে কিংবা যে কোন নাম্বার থেকে কল রিসিভ করতে পারবেন তখনই যখন আপনার হ্যান্ডসেটে যে দেশে আছেন সে দেশের নেটওয়ার্কের নাম দেখাবে

. ম্যানুয়াল নেটওয়ার্ক বাছাইকরণ: 
কোন কারণে নেটওয়ার্ক বাছাই করণে যদি দেরী হয় সেক্ষেত্রে নিজে নিজে/ ম্যানুয়ালি নেটওয়ার্ক বাছাই করুন। স্বয়ংক্রিয় নেটওয়ার্ক সার্চ এর চেয়ে ম্যানুয়ালি নেটওয়ার্ক সার্চ দ্রুত হয়। আপনি যদি GPRS সুবিধাও পেতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে GPRS সম্পন্ন নেটওয়ার্ক বাছাই করতে হবে। ম্যানুয়ালি নেটওয়ার্ক বাছাইকরণের জন্য আপনাকে নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে:

অটোমেটিক কনফিগারেশন

ফোন চালু হবার পর বাংলালিংক নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হবার জন্য অপেক্ষা করুন > নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হলে বাংলালিংক অথবা bgd bl অপারেটর লোগো দেখা যাবে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: রোমিং থাকা অবস্থায় ডায়াল করা বাংলাদেশে থাকা অবস্থায় ডায়াল করার থেকে কিছুটা ভিন্ন। অনুগ্রহ করে রোমিং থাকা অবস্থায় কীভাবে ডায়াল করবেন তা নিচে দেখে নিন

ভ্রমণরত আবস্থায় কল করা

ভ্রমণরত দেশের মোবাইলে কল করতে: কাংক্ষিত নাম্বার ডায়াল করুন

ভ্রমণরত দেশের ল্যান্ডফোনে কল করতে: ডায়াল করুন <এরিয়া কোড><ফোন নাম্বার>

বাংলাদেশে কল করতে:

বাংলাদেশের কোন মোবাইলে কল করতে: ডায়াল করুন <+88><মোবাইল নাম্বার>
যেমন:  রোমিং এ থাকাকালীন 01950111111 নাম্বারে কল করতে, আপনাকে ডায়াল করতে হবে +8801950111111

ঢাকার কোন ল্যান্ডফোনে কল করতে: ডায়াল করুন <+8802><কাংক্ষিত নাম্বার>
যেমন: ঢাকার 9888370 নাম্বারে কল করতে ডায়াল করুন +88029888370

অন্য কোন দেশে কল করতে: ডায়াল করুন <+><দেশের কোড><কাংক্ষিত নাম্বার> (কাংক্ষিত নাম্বারটি যদি কোন মোবাইল নাম্বার হয় তাহলে শুরুর শুন্যকে বাদ দিন)

অনুগ্রহ যে কোন প্রকার ডায়ালিং তথ্য জানতে নিচের ওয়েবসাইটটি ভিজিট করুন: www.numberingplans.com/?page=dialling&sub=instructions 

রোমিং চার্জিং রীতি

রোমিং কল চার্জ নির্ভর করে আপনি কোন অপারেটরের সাথে রোমিং করছেন। আপনি যখন রোমিং এ থাকবেন তখন কল করার সময় কিংবা SMS পাঠানোর সময় GPRS ব্যবহার করুন, রোমারদের জন্য ভিজিটেড নেটওয়ার্কের বিশেষ কলরেট থাকে। আমরা আপনাকে এর সাথে সামান্য কিছু যোগ করে বিল করবো। অনুগ্রহ করে মনে রাখবেন এই কলরেটগুলো সাধারণত এক্সচেঞ্জ রেট এর উঠানামার উপর ভিত্তি করে পরিবর্তিত হতে পারে এবং VAT, ট্যাক্স ও বিদেশী নেটওয়ার্কের অন্যান্য চার্জ ব্যতীত।

বিদেশে থাকাকালীন আপনি যখন কোন কল রিসিভ করেন আসলে সেটা বাংলাদেশ থেকেই আপনাকে কলটি ফরোয়ার্ড করা হয়। সেক্ষেত্রে আপনাকে শুধুমাত্র বাংলালিংক কলচার্জ+বিটিটিবির সেই দেশের কল চার্জ যুক্ত করা হবে। এই ফরোয়ার্ডকৃত ISD কলটি আপনার লোকাল বিলের সাথে দেখানো হবে রোমিং কল ফরোয়ার্ডিং হিসেবে।